fbpx

P2P MEDIA

পিটুপি বিল্ড এক্সপো ২০২২

Posted by MEHEDI HASAN NILOY On Nov 15 , 2022

পিটুপি বিল্ড এক্সপো ২০২২: অব্যাহত রাখবে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা

বিশ্ব জুড়ে ব্যবসার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে এক্সিবিশন, বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। রপ্তানিতে উন্নতি করার দুর্দান্ত একটি উপায় হচ্ছে এই এক্সিবিশন বা এক্সপো; যা একই সাথে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতেও অবদান রাখে। প্রতি বছর বিভিন্ন ধরণের এক্সপো আয়োজন করতে বিপুল পরিমানে অর্থ খরচ করে বাংলাদেশ সরকার, যা দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে গতিশীল করে। ২০২২ সালের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আয়োজনে সরকার ব্যয় করেছে প্রায় ২.৩১ বিলিয়ন টাকা।

বাংলাদেশে আয়োজিত এক্সিবিশনগুলো বিবেচনা করলে দেখা যায়, এগুলো সবসময়ই ব্যবসা বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে থাকে। এটি উৎপাদক ও সরবরাহকারীদের জন্য জাতীয় বা বৈশ্বিক পর্যায়ে প্রতিযোগিতা করার সুযোগ তৈরি করে; অপরদিকে, এটি রপ্তানির পরিমাণ বৃদ্ধি করার মাধ্যমে দেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখে; পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারে দেশের পণ্য প্রবেশের পথ সহজ করে ও দেশের ব্যবসায়িক অবস্থান পোক্ত করতে সহায়তা করে।

বিশেষজ্ঞরা মত প্রকাশ করেন, “এক্সিবিশনগুলোকে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। অর্থনীতিতে এর সরাসরি প্রভাব পড়ে এবং প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে বহু চাকরিক্ষেত্র তৈরি হয়।” এক্সপোর প্রভাব ও বিশেষ করে মূল্যস্ফীতির কঠিন এই সময়ে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে অবদানের কথা বিবেচনা করে, পিটুপি নিয়ে আসছে এর ফ্ল্যাগশিপ বিল্ড এক্সপো ২০২২।

বাংলাদেশের বাজারে ডিজাইন, নির্মাণ এবং রিয়েল এস্টেট খাতের ওয়ান-স্টপ সল্যুশন প্রদানকারী নেতৃস্থানীয় ব্র্যান্ড পিটুপি, যারা বাংলাদেশের বন্দর শহর ও প্রধানতম ব্যবসা কেন্দ্র চট্টগ্রামকে ঘিরে নিজেদের ব্যবসা পরিচালনা করছে। সেই বন্দর নগরীতেই আগামী ১৭ থেকে ২১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে পিটুপি বিল্ড এক্সপো ২০২২।

এ বিষয়ে পিটুপি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোস্তফা আশরাফুল ইসলাম আলভী বলেন, “পিটুপি’র মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে- বাংলাদেশে জরুরি ও মানসম্মত বিল্ডিং ম্যাটেরিয়াল, নির্মাণ ও রিয়েল এস্টেট সম্পর্কিত সব সমাধান এক জায়গায় নিয়ে আসা।” ২০১৯ সালে বিল্ড এক্সপোর সূচনা হওয়ার পর থেকে এর প্রধান লক্ষ্য হয়ে ওঠে বাংলাদেশের মানুষকে নির্মাণ-সম্পর্কিত সেরা ওয়ান-স্টপ সল্যুশন প্রদান করা। এই মেগা ইভেন্টটি ইতোমধ্যে ২০১৯ সালে বাংলাদেশের সমস্ত বাড়িতে এর পদচিহ্ন স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে। ২০২২ সালে পিটুপি আরও বড় পরিসরে পদচিহ্ন স্থাপন করার লক্ষ্য নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশের বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতিকে কেন্দ্র করে এই এক্সপোর প্রধান উদ্দেশ্য আবর্তিত হচ্ছে। পিটুপি প্রতি বছর এ ধরনের এক্সিবিশন করার ইচ্ছা রাখে, তারপরও মহামারীর কারণে গত দু’বছর ধরে এটি করা সম্ভব হয়নি। মূল্যস্ফীতির এই কঠিন সময়ে আবারও মেগা এক্সিবিশন আয়োজনের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছে পিটুপি। রিয়েল এস্টেট ও নির্মাণ খাতে আরও বিজ্ঞতার সাথে অর্থ বিনিয়োগ করা এবং সেখান থেকে ভাল ফলাফল বের করে নিয়ে আসতে মানুষকে সহায়তা করছে পিটুপি।

“পিটুপি বিল্ড এক্সপো ২০২২” দেশে এমনকি দেশের বাইরেও নিজের কাজের ছাপ তৈরি করতে প্রস্তুত! অনেক অপেক্ষার পর প্রত্যাশিত কিছু পাওয়ার মতোই এটি!